বাড়ি ABROAD সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশিকে নির্যাতনের দায়ে দোষী সাব্যস্ত সাবেক অভিনেতা

সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশিকে নির্যাতনের দায়ে দোষী সাব্যস্ত সাবেক অভিনেতা

সিঙ্গাপুরে এক বাংলাদেশি পরিচ্ছন্নতাকর্মীকে নির্যাতনের মামলায় দেশটির সাবেক অভিনেতা-পরিচালক নগ আইক লিওঙ্গ ওরফে হুয়াং ইলিয়াং দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন।

২০১৮ সালের ওই ঘটনার বিচার শেষে শুক্রবার জেলা জজ জন এনজি তাকে নির‌্যাতনের একটি ঘটনায় দোষী হিসেবে সাব্যস্ত করে রায় দেন বলে অনলাইন নিউজ পোর্টাল স্ট্রেইটস টাইমস জানিয়েছে।

৫৯ বছর বয়সী সাবেক এই অভিনেতার কি সাজা হবে সে বিষয়ে ২৬ ফেব্রুয়ারি আদালত সিদ্ধান্ত দেবে। এই মামলায় দোষীদের সর্বোচ্চ সাত বছরের কারাদণ্ড, জরিমানা ও বেত্রাঘাতের বিধান রয়েছে। তবে নগ পঞ্চাশোর্ধ্ব হওয়ায় তাকে বেত্রাঘাত করা যাবে না।

২০১৮ সালের ১১ই ডিসেম্বর একটি ধাতব পদার্থ দিয়ে বাংলাদেশি জাহিদুলের পেটে ও মাথায় আঘাত করেছিলেন নগ আইক লিওঙ্গ। তাতে তিনি কোনোমতে বেঁচে গেলেও কোমর ও মাথার খুলিতে আঘাত পান। জাহিদুলের বিস্তারিত পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি।

শুনানিতে জাহিদুল বলেন, নগ আইক লিওঙ্গের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত সিঙ্গাপুর ইসলামিক হাবে পরিচ্ছন্নকর্মী হিসেবে কাজ করতেন তিনি। তখন প্রায়ই কাজের ভুল ধরে তাকে মারধর করা হতো। এছাড়াও তাকে প্রায়ই মারার হুমকি দিতেন নগ আইক লিওঙ্গ।

ঘটনার দিন নগ আইক তার কাছে একটি রশি চান। জাহিদুল তাকে একটি রশি এনে দেন। কিন্তু সেটি চাহিদামাফিক না হওয়ায় শুরু হয় তার ওপর নির্যাতন। একবার তার দিকে প্লাস্টিকের একটি স্তূপ ছুড়ে মারেন নগ আইক। আবার কাঠ ছুড়ে মারেন। প্লাস্টিক গিয়ে আঘাত করে তার পিঠে।

এ সময় জাহিদুল ছিলেন একটি মইয়ের ওপর। ভয়ে তিনি নেমে আসেন। এরপরই ধাতব পদার্থ দিয়ে তার পেটে ও মাথায় আঘাত করতে থাকেন নগ। এতে জাহিদুলের মাথার খুলি ফেটে ও থেঁতলে যায় অনেক স্থান।

আদালতে নগ আইক লিওঙ্গ বলেছেন, জাহিদুল তাকে ‘বাবা’ হিসেবে মেনে শাসন ও মারধরের অধিকার দিয়েছেন।

২০ বছরের বেশি সময় অভিনয় করেছেন নগ আইক লিওঙ্গ। পর পর ২০০২, ২০০৩, ও ২০০৬ সালে তিনি সেরা সহ-অভিনেতার পুরস্কার জিতেন। ২০০৮ সালে তিনি মিডিয়াকর্প ছেড়ে নিজের প্রযোজনা সংস্থা চালু করেন।