বাড়ি ABROAD করোনায় ভিসা জটিলতা: মায়ের শেষ বিদায়ে দেশে আসতে পারেননি তারা

করোনায় ভিসা জটিলতা: মায়ের শেষ বিদায়ে দেশে আসতে পারেননি তারা

বাবা-মায়ের মতো আপন কেউ নেই। করোনাকালীন সেই বাবা-মায়ের মৃত্যুতে অনেক প্রবাসী সন্তানই তাদের প্রিয় মুখটি দেখতে পারেনি-নানা জটিলতায়। দিতে পারেনি কবরে শেষ একমুঠো মাটিও। আয়ারল্যান্ড থেকে বাবা-মায়ের শেষ বিদায়ে হাজির হতে না পারায় ক্ষোভ জানান কয়েক প্রবাসী।

নিজের সুখের কথা না ভেবে শুধুই সন্তানের আনন্দই যার কাছে সব তিনিই মা। আবার দিনরাত যে মানুষটি ছেঁড়া জামা পরে হলেও সন্তানদের নতুন জামা পরিয়েছেন, আর ঘাম ঝরিয়েছেন তাদের মানুষ করতে তিনি আর কেউ নন, বাবা। কিন্তু মহামারি করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন অনেকের বাবা-মা। প্রবাসী সন্তানরা শেষবারের মতো দেখতে পারেনি বাবা-মায়ের মুখ। ফ্লাইট জটিলতা থেকে শুরু করে করোনা পরীক্ষা নিয়ে ছিল জটিলতা। ফলে তারা দেশে আসতে পারেননি।

এক প্রবাসী তার কষ্টের কথা জানিয়ে বলেন, কয়েক দিন আগে আমার মা মারা গেছেন। এত উন্নত দেশের থেকেও আমরা ভাইবোন যেতে পারিনি। বিভিন্ন ট্রাভেল্স এজেন্সির সঙ্গে যোগাযোগ করেছি, বিভিন্নভাবে চেষ্টা করেছি। কিন্তু মহামারির কারণে আমরা যেতে পারিনি।

জীবিত থাকাকালীন যে মা-বাবা হাজারো দুর্যোগে আগলে রেখেছিলেন তাদের প্রিয় সন্তানদের, নিরাপত্তা দিয়েছেন সবটুকু সময়; তাদের চিরবিদায়ে হাজির হতে না পারার বেদনা প্রবাসে বয়ে বেড়াচ্ছেন সন্তানরা।

আরেক প্রবাসী বলেন, মাকে হারিয়েছি কয়েক দিন আগে। কিন্তু যেতে পারিনি, এ যে কত কষ্টের আর বেদনার সেটা কাউকে বলে বোঝানো যাবে না।  

মন খারাপ করা এই মেঘলা আকাশের মতোই বিষন্নতায় ঢেকে থাকে প্রবাসীদের মন। এর মাঝে বাবা, মায়ের মৃত্যুতে কাছে থাকতে না পারার যন্ত্রণায়-আকাশভাঙা বৃষ্টির অঝোর ধারায় প্লাবিত হয় সন্তানদের দু’চোখ। এটাই প্রবাসজীবন।

Exit mobile version