বাড়ি ABROAD ইতিহাসের ভয়াবহ সংকটে জার্মানির পর্যটন শিল্প

ইতিহাসের ভয়াবহ সংকটে জার্মানির পর্যটন শিল্প

একে তো ক্ষণে ক্ষণে রং বদলানো ভয়ংকর ভাইরাস করোনা, তার ওপর মাঘের শীত। সেই সঙ্গে মন্দার পর মন্দা যেন তিলে তিলে শেষ করে দিতে চাইছে সারাবিশ্বের ভ্রমণ পিপাসু পর্যটক, গাড়ি বা নতুন নতুন পণ্য ও প্রযুক্তি প্রেমী ব্যবসায়ীদের প্রিয় দেশ জার্মানিকে।

অন্যান্য খাতের মতোই পর্যটন শিল্পেও নেমেছে ভয়াবহ ধস। সেই গেল বছরের এপ্রিল থেকেই বন্ধ আন্তর্জাতিক সব মেলা, ইভেন্ট, বিমান, হোটেল-মোটেলসহ অভ্যন্তরীণ আনন্দ-বিনোদনের সব স্থান।

‘এটা খুবই দুঃখের কথা, অন্য সবকিছুর মতই দেশের পর্যটন খাতেও ভয়াবহ সংকট চলছে, এই দেখুন  আমাদের বার্লিনে পর্যটকদের জন্য প্রমোদতরীগুলোর অবস্থা কী! সব জাহাজই শিকল দিয়ে বাঁধা। জাহাজের মালিকদের মতো এ খাতে কর্মরতদের দুর্দিন চলছে,’ বলছিলেন পর্যটন সংশ্লিষ্ট এক জার্মান নাগরিক।

সবকিছু মিলিয়ে মহামারি করোনা শুরুর পর থেকেই এ যেন বেঁচে থাকার জন্য অন্য এক অদৃশ্য সংগ্রামে যুদ্ধে লিপ্ত জার্মানির স্থানীয়সহ দেশটিতে বসবাসরত প্রবাসীরা।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, করোনার উন্নতি দেখছি না। কষ্ট লাগে বার্লিনকে এখন মানবশূন্য দেখতে। হোটেলগুলোও বন্ধ। তার চেয়ে বড় বিষয় সাংস্কৃতিক সব আয়োজনইতো বন্ধ। সমস্যার সমাধানে আমার মনে হয় টিকা দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে করোনার বিধিনিয়ম আরও কঠিন করা উচিত। তাহলেই ভাইরাস পালাবে। 

এ অবস্থায় গেল বছরের এপ্রিলের শুরু থেকেই জার্মানির পর্যটন খাতে বিলিয়ন ইউরোর ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়া আদৌ সম্ভব হবে কিনা তা নিয়ে সন্দিহান সংশ্লিষ্টরা।